Fri. Jun 18th, 2021

সিলেট টেলিগ্রাফ

সত্য প্রকাশে অবিচল

(কোভিভ-১৯)  প্রাদুর্ভাবে সুরক্ষা ছাড়াই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন পল্লীবিদুৎ কর্মীরা 

1 min read

 308 total views,  2 views today

এম.এ জয়নুল চৌধুরী, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি :

বিয়ানীবাজারে  বৈশাখের দ্বিতীয় দিনে কালবৈশাখী ঝড়ের তাণ্ডব ছিল এক ঘন্টারও বেশি সময় ধরে। বুধবার বিকেলে ঝড় থামার দুই ঘন্টা পর বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে সক্ষম হন বিয়ানীবাজারের পল্লীবিদ্যুৎকর্মীরা। অথচ করোনা ভাইরাসের এ সংকটময় সময়ে বিদুৎকর্মীরা ছিলেন অরক্ষিত!

কালবৈশাখী ঝড়ে চারখাই গ্রিড স্টেশনের সাথে সুপাতলা সাবস্টেশনের সংযোগ লাইনের ৫/৬টি অংশে গাছ পড়ে যায়। এছাড়া উপজেলার বেশ কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইন ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের কর্তাদের দায়িত্বশীলতা এবং কর্মীদের অক্লান্ত চেষ্টায় দুই ঘন্টার পর থেকে সরবরাহ শুরু হতে থাকে। রাত সাড়ে ৮ টায় পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে উঠে। অথচ গ্রামীণ জনপদে করোনার মহামারি এই সময়ে বিদ্যুৎ কর্মীদের কোন ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামই (পিপিই) ছিল না।

নিজেদের হতাশার কথা ব্যক্ত করে পল্লীবিদ্যুৎ বিয়ানীবাজারের ডিজিএম অভিলাশ চন্দ্র পাল। তিনি বলেন, বিয়ানীবাজারে অনেক সংগঠনই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পিপিই বিতরণ করেছে। ডাক্তারদের পাশাপাশি অন্যান্যদের দেয়া হয়েছে। কোথাও কোথাও একাধিকবার পিপিএ প্রদান করা হয়েছে। আমাদের আক্ষেপ একটিবারের জন্য কেউ বিদ্যুৎ কর্মীদের কথা ভাবেননি। আমাদের কর্মীরা আশিভাগ কাজ করেন জনবহুল এলাকায়। আমরা যদি ১০ মিনিটের  কাজ করার জন্য বিদুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলে, শতাধিক ফোন কল চলে আসে, গভীর রাতেও ঝড়ে তুফান উপেক্ষা করে ও কাজ করতে হয় আমাদের,  সবাই হোম-কোয়ারেন্টাইন পালন করছেন – কিন্তু আমরা ২৪ ঘণ্টাযুক্ত থাকি আপনাদের সেবায়।

Ad
সম্পাদক : যীশু আচার্য্য II স্বপ্নীল ৬৪ মির্জাজাঙ্গাল, সিলেট II ফোন: ০১৭১৯-৭৩৩৫৪৯ | Newsphere by AF themes.
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.