Sun. Dec 5th, 2021

সিলেট টেলিগ্রাফ

সত্য প্রকাশে অবিচল

বিয়ানীবাজার মোল্লাপুর ইউনিয়নে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার ত্রাণ সামগ্রী উপহার দিলেন প্রবাসীরা

1 min read

 818 total views,  2 views today

এম.এ জয়নুল চৌঃ বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি -করোনা ভাইরাসের কারণে সারাদেশের বিয়ানীবাজার উপজেলার মোল্লাপুর ইউনিয়নের পাতন গ্রামের দিনমজুর ও শ্রমজীবীরা চরম অনিশ্চিয়তা দিন কাটাচ্ছে। লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন গ্রামের অনেক শ্রমজীবী মানুষ। গ্রামের কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে এগিয়ে এসেছেন পাতন ওয়য়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকেসহ যুক্তরাষ্ট্রে ও যুক্তরাজ্যে বসবাসরত এলাকার প্রবাসীরা।

পাতন গ্রামের নাগরিকদের নিয়ে দুর্যোগকালীন সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে গঠন করা হয়েছে একটি কমিটি। আর এর দ্বায়িত্বশীলরা মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) গ্রামের ১৬৮টি অসহায় সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ঘরে ঘরে গিয়ে পৌছিয়ে দিয়েছেন। খাদ্যসামগ্রী মধ্যে ছিল পরিবার জনপ্রতি চাল, ডাল, পিয়াজ, চানা, আলু, রসুন, খেজুর ও ভোজ্য তেল। এছাড়াও পরিবার প্রতি নগদ ১ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তাও প্রদান করা হয়েছে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগকালীন সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে গঠিত কমিটির আহ্বায়ক শওকত আলী, সদস্য সচিব ছিদ্দিক আহমেদ, সদস্য হাজি আব্দুল মালিক, হারিছ উদ্দিন, রফিক উদ্দিন, হাজি ছুফিয়ান আহমেদ, হাফিজ আব্দুল মতিন, আমির হোসেন হিরা, পারুল আহমদ, বদরুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, পাতন যুব সমাজ ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক অলিউর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল করিম, সদস্য সচিব জাহিদ আহমদ রুবেল, পাতন যুব সমাজ ঐক্য পরিষদ উপদেষ্টা আব্দুল কাদির বেলাল, জিয়াউর রহমান, আলতাফ হোসেন, শাব্বির হোসেন হিরা, হোসেন আহমদ, হেলাল আহমদ, ওয়ালী মাহমুদ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী মাহবুবুর রহমান, পাতন যুব সমাজ ঐক্য পরিষদের সদস্য ফখরুল ইসলাম, আতাউর রহমান, ইমরুল হাসান, সেলিম আহমদ, জামিল আহমদ, শাহেদ আহমদ, রাহিম, নাবিল আশরাফ, শিমুল আহমদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল পাতন গ্রামের বিত্তবান ও প্রবাসীদের অর্থায়নে গ্রামের ৩৬০টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়। ভবিষ্যেও এর ধারা অব্যাহত রাখার কথা জানান দ্বায়িত্বশীলরা।

Ad
সম্পাদক : যীশু আচার্য্য II স্বপ্নীল ৬৪ মির্জাজাঙ্গাল, সিলেট II ফোন: ০১৭১৯-৭৩৩৫৪৯ | Newsphere by AF themes.
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.